মোঃ সাইদুর রহমান, মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ ডাক্তার দেখানোর কথা বলে মাদারীপুরের কালকিনিতে আবদুল করিম মাষ্টার(৮০) নামে এক ক্যান্সার আক্রান্ত অসুস্থ্য বৃদ্ধের কাছ থেকে জমি লিখে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ওই জমি ফেরত পাওয়ার দাবিতে মঙ্গলবার দুপুরে ওই বৃদ্ধ এক প্রতিবাদ সভা করেছে। ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, পৌর এলাকার দক্ষিন রাজদী গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আবদুল করিম বয়সের কারনে দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছেন।

তার সংসারে ৪ ছেলে ও ৩ মেয়ে রয়েছে। তিনি বর্তমানে প্রায় জ্ঞান শুন্য হয়ে পড়েছেন। এ সুযোগে তার ছোট ছেলে শাহিন বেপারী, বোন নেহার বেগম, বিলকিস বেগম ও রেকসোনা বেগম মিলে প্রতারনার আশ্রায় নিয়ে অসুস্থ্য বাবা আবদুল করিমকে ডাক্তার দেখানোর কথা বলে সম্প্রতি ৩৯ শতাংশ জমি দলিল কার্যক্রমের মাধ্যমে লিখে নিয়েছেন।

এতে করে ওই বৃদ্ধের বাকি তিন ছেলে সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হয়ে পড়েছেন। এ ঘটনায় জমি ফেরত পাওয়ার দাবিতে বৃদ্ধের বড় ছেলে হাবিবুর রহমান মাদারীপুর কোর্টে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

অসুস্থ্য বৃদ্ধ আবদুল করিম বলেন, আমাকে চিকিৎসা করাবে এ কথা বলে একটি বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মেড়ে ফেলার হুমকি দিয়ে দলিলে সই করিয়েছে ছেলে শাহিন ও মেয়ে জামাইরা।

তবে আমার মেয়ে জামাই ছালাম মোল্লা এসব করিয়েছে। আমি ওই জমি ফেরত চাই। সম্পত্তি বঞ্চিত ছেলে হাবিবুর রহমান, মাহাবুব আলম ও মামুন বলেন, আমার বাবার সাথে প্রতারনা করে আমাদের ঠকিয়ে জমি লিখে নিয়েছে ছোট ভাই শাহিন ও আমাদের তিন বোন।

আমরা জমি ফেরত চাই। অভিযুক্ত বৃদ্ধের মেয়ের জামাই ছালাম মোল্লা বলেন, জমি দলিল করে নিয়েছে তার ছেলে- মেয়েরা। তাতে আমার কি আসে যায়।