হাসান আহাম্মেদ সুজন, জামালপুর জেলা প্রতিনিধিঃ জামালপুর শহরে ছানোয়ার হোসেন সবুজ নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব ও শ্লীলতাহানির খবর পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ঘৃণা ও লজ্জায় নিজের হাত আগুনে পুড়িয়েছেন সনাতন ধর্মাবলম্বী ওই নারী। শনিবার (৯ অক্টোবর) এ ঘটনার বিচার দাবিতে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি-সম্পাদক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগীর স্বামী।

অভিযুক্ত ছানোয়ার হোসেন সবুজ জামালপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং ১৩নং মেষ্টা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। তিনি শহরের শহীদ হারুন সড়কের ‘সবুজ একাডেমি’ নামের প্রাইভেট স্কুলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

আসন্ন ইউপি নির্বাচনে তিনি মেষ্টা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী বলে জানা গেছে। লিখিত অভিযোগে জানা যায়, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদকের স্ত্রী ছানোয়ার হোসেন সবুজের মালিকানাধীন সবুজ একাডেমির শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত।

তাঁর দুই সন্তানও ওই স্কুলে পড়াশোনা করে। গত ৬ অক্টোবর (বুধবার) দুপুর ১.৩০টার দিকে স্কুল ছুটির পর ওই শিক্ষিকাকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছানোয়ার হোসেন সবুজ কুপ্রস্তাব দেন। একপর্যায়ে ক্যাম্পাস ফাঁকা পেয়ে তিনি ওই শিক্ষিকাকে জোরপূর্বক জড়িয়ে ধরে ধস্তাধস্তি করেন।

এসময় শিক্ষিকা পরিচালকের কাছ থেকে কোনোরকম রক্ষা পেলেও শাখা-বালার চাপ লেগে হাত জখম হয়। একপর্যায়ে তিনি দৌঁড়ে রাস্তায় গিয়ে আত্মরক্ষা করেন। অভিযোগকারী জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জানান, তিনি নিয়মিত তাঁর স্ত্রীকে মোটর সাইকেলযোগে সবুজ একাডেমিতে আনা-নেওয়া করতেন।

সুযোগ পেলেই ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছানোয়ার হোসেন সবুজ তাঁর স্ত্রীকে নিয়মিত উত্যক্ত করতেন। ঘটনার দিন তিনি পেশাগত ব্যস্ততায় স্ত্রীকে স্কুল থেকে আনতে যাননি, এ সুযোগে সবুজ স্কুল ছুটির পর জরুরি কাজের অযুহাতে তাঁর স্ত্রীকে অফিসে বসতে বলেন এবং একপর্যায়ে অপকর্মের চেষ্টা চালান। বিষয়টি আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার আগে দলীয় নেতৃবৃন্দের কাছে প্রতিকার চেয়ে লিখিত আবেদন করেছেন বলেও তিনি জানান।

অভিযুক্ত জামালপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও সবুজ একাডেমির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছানোয়ার হোসেন সবুজ অভিযোগ অস্বীকার করে মুঠোফোনে বলেন, আমি মেষ্টা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী, এ অবস্থায় আমাকে হেয় করতে অপপ্রচার করা হচ্ছে। এব্যাপারে জামালপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সৈয়দ তানভীর আহম্মেদ মুঠোফোনে জানান, বিষয়টি নিয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

ভিকটিম সনাতন ধর্মাবলম্বী, তিনি লজ্জায় ও ঘৃণায় তাঁর হাত গ্যাসের চুলার আগুনে পুড়িয়েছেন বলে শুনেছি। বিষয়টি কী করা যায়— জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সম্পাদকের সাথে কথা বলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জামালপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডাঃ এম এ মান্নান বলেন, লিখিত অভিযোগটি স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বরাবর প্রেরণ করেছেন।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আমাকে বিষয়টি দেখার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান। সবুজ একাডেমি পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সৈয়দ আতিকুর রহমান ছানার সাথে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি।