হাকিমির জোড়া গোলে পিএসজির নাটকীয় জয় - ছবি : নয়াদিগন্ত

চোটের কারণে ছিলেন না মেসি। এমবাপে, নেইমার, ইকার্দিরা ছিলেন ছায়া হয়ে। মিস করেছেন বেশ কয়েকটি গোল। ড্র হতে যাওয়া ম্যাচে শেষ পযন্ত নায়ক হামিকি। তার জোড়া গোলেই জিতেছে পিএসজি। ফরাসি লিগ ওয়ানে বুধবার রাতে মেসকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তারা।

লিগে এটি পিএসজির টানা সপ্তম জয়। আর মেসের বিপক্ষে টানা ১১ জয়। ম্যাচে ৭৪ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের জন্য পিএসজি শট নেয় ১৫টি, যার পাঁচটি লক্ষ্যে। মেসের ছয় শটের দুটি লক্ষ্যে ছিল। অতিরিক্ত সময়ে একজন খেলোয়াড় লাল কার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় মেস। এই ঘটনায় লাল কার্ড দেখে তাদের কোচও।

ম্যাচের পঞ্চম মিনিটে নিজেদের প্রথম সুযোগেই এগিয়ে যায় পিএসজি। নেইমারের পাসে ইকার্দি গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও ডাইভ দিয়ে গোললাইন থেকে বল ফেরান ডিফেন্ডার মাথিউ উদল। ফিরতি বল ফাঁকায় পেয়ে হাকিমির ভলিও ফিরিয়ে দেন আরেকজন। তবে ততক্ষণে গোললাইন পেরিয়ে গিয়েছিল বল। রেফারি বাজান গোলের বাঁশি।

২৪ মিনিটে অল্পের জন্য বেঁচে যায় পিএসজি। ডান দিক থেকে সতীর্থের ক্রসে ডি-বক্সে এনদিয়াগা ইয়াদের ওভারহেড কিকে পোস্টের সামান্য বাইরে দিয়ে যায় বল। ৩৯ মিনিটে সমতায় ফেরে মেস। কর্নার থেকে আসা বলে জোরাল হেডে গোলটি করেন বুবাকার কুয়াইত।

এরপর পিএসজি আক্রমণ করে গেছে ধারাবাহিক। গোলের দেখা মিলছিল না। নির্ধারিত ৯০ মিনিট থাকে ১-১ এ সমতা। কিন্তু যোগ করা সময়ে বদলে যায় চিত্র। ৯১ মিনিটে অযথা বলে লাথি মেরে সময় ক্ষেপণের জন্য দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন মেসের ডিফেন্ডার ডিলান ব্রন। রেফারির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে লাল কার্ড দেখেন দলটির কোচও।

৯৫ মিনিটে হামিকি করেন জয়সূচক গোল (২-১)। সাত ম্যাচে ২১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে পিএসজি। এক ম্যাচ কম খেলে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে মার্সেই।