নিরাপত্তা শঙ্কার কথা বলে শুক্রবার রাওয়ালপিন্ডিতে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর কিছুক্ষণ আগে সফর বাতিল করে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। কিউইদের এমন সিদ্ধান্তে রীতিমতো হতাশ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।





পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান বলেছেন, ২০১৯ সালে ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পরও পাকিস্তান ক্রিকেট দল সেখানে সফর করেছে। এমন একটা আক্রমণের পর আমরা সেই দেশে না গেলে কী হতো? আমার মনে হয়, এসব বিষয়ে ক্রিকেটে একটা বৈষম্য আছে।





নিউজিল্যান্ডের পরই পাকিস্তান সফরে যাওয়ার কথা ছিল ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের। কিন্তু কিউইরা নিরাপত্তার কথা বলে সফরে গিয়ে ফেরত আসায় ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়া দলের পাকিস্তান সফর শঙ্কার মধ্যে পড়েছে।

তবে পিসিবির বিশ্বাস ইংল্যান্ড পাকিস্তান সফরে যাবে। পিসিবির প্রধান নির্বাহী অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে সোমবার সাংবাদিকদের বলেছেন, ২০১৬ সালে গুলশানের হলিআর্টিজানে সন্ত্রাসী হামলার পরও ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) যে নিরাপত্তা পরামর্শক দল সফরে যেতে বলেছিল, তারাই এবারো পাকিস্তান সফরের আগে কাজ করছে। এই নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের ওপর বিশ্বজুড়েই অনেকের আস্থা আছে, তারা সম্মানিতও। আমরা অবশ্যই আশা করছি, বোর্ডের সভা শেষে ইসিবি এ সংক্ষিপ্ত সফরের জন্য পাকিস্তানে দল পাঠাবে।

বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ড পাকিস্তান সফরে না গেলে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা ক্রিকেট দলকে নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছে পিসিবি। 

এ ব্যাপারে ওয়াসিম খান বলেন, আমরা শ্রীলংকা ও বাংলাদেশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তবে এত সংক্ষিপ্ত নোটিশে আসলে বাংলাদেশ বা শ্রীলংকা দলের পাকিস্তানে আসা সম্ভব নয়। দুই বোর্ডই অনেক আগ্রহ দেখিয়েছে। তবে এত কম সময়ের মধ্যে আসলে আয়োজন করা সম্ভব নয়। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা দেশজুড়ে ছড়িয়ে আছে। আর কিছু দিনের মধ্যেই বিশ্বকাপে অংশ নিতে আরব আমিরাত যাবে শ্রীলংকা।